কুষ্টিয়া দৌলতপুরে ফসলের ক্ষেত থেকে শ্যামলী খাতুন (৩০) নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার

কুষ্টিয়া থেকে সাহাবুদ্দিনঃ

কুষ্টিয়া দৌলতপুরে ফসলের ক্ষেত থেকে শ্যামলী খাতুন (৩০) নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুকবার (৪ জুন) ভোর ৬টার দিকে উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের ঘোড়ামারা গ্রাম থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।শ্যামলী ওই গ্রামের তাজমেল আলীর মেয়ে।স্হানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার আনুমানিক রাত ৮টার দিকে মোবাইলে কথা বলতে বলতে বাহিরে বের হয়ে আর বাড়ী ফেরেনা সে। পরে শুক্রবার সকালে বাড়ীর পাশের ক্ষেতে ঐ নারীর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে তার মেয়ে মিতু স্থানীয় ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের খবর দেয়।পরে থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে। জানা যায়, নিজ বাড়ি থেকে মাত্র একশ গজ দূরে ফসলের মাঠে মরদেহটি পড়ে ছিল।গলায় পেঁচানো ছিল পরনের ওড়না আর চোখসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন ও রক্তের দাগ ছিলো । ওই নারী স্বামী পরিত্যক্তা।তার ১২ বছরের একটি মেয়ে সন্তান আছে। তিনি প্রায় ১০ বছর আগে স্বামীর সাথে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর থেকে বাবার বাড়িতে থাকে। দৌলতপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাসির উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কুষ্টিয়া সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে।

শর্টলিংকঃ