দুর্গাপুরে স্বামীকে হত্যারচেষ্টা করায় স্ত্রীকে তালাক দিলেন স্বামী, স্বামীকে স্ত্রীর হুমকি

স্টাফ রিপোর্টার, দুর্গাপুর

দুর্গাপুরে স্বামীকে বারবার হত্যার চেষ্টা করায় স্ত্রীকে তালাক দিলেন স্বামী।
তালাক দেওয়ায় স্বামীকে হত্যার হুমকি দিয়েছে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী। এই ঘটনায় এলাকাবাসীর মাঝে মিশ্রপ্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে দুর্গাপুর উপজেলার আলিপুর সরদার পাড়া গ্রামে।
ঘটনাটি নিরসনের জন্য উভয় পক্ষকে নিয়ে ইউপি সদস্য মানিক গাজীর নেতৃত্বে ১০ অক্টোবর রবিবার রাতে সমঝোতা বৈঠক বসে এলাকায়। শালিস বৈঠকের মাধ্যমে তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রীকে তার বড়ভায়ের নিকট হস্তান্তর করে শালিসদার ইউপি সদস্য।
জানাযায়, উপজেলার আলীপুর গ্রামের নাজিমুদ্দিনকে বিভিন্ন সময় মারধর করতো স্ত্রী রোকেয়া বেগম। কাজিমুদ্দিনের সম্পত্তি লিখে নেওয়ার জন্য স্ত্রী রোকেয়া বেগম মানুষিক ও শাররিকভাবে অত্যাচার ও মারধর করতো। কাজিমুদ্দিন বলেন, দুই-তিনবার আমাকে বালিশ চাপা দিয়ে মেরে ফেলতে চেয়েছিল। আমি অতিষ্ঠ হয়ে গত ৬ অক্টোবর তাকে আদালতের মাধ্যমে তালাক দিয়েছি। একারনে আমাকে বিভিন্ন সময় মেরে ফেলা ও ফাঁসানো ভয় দেখাচ্ছে রোকেয়া।
এলাকাবাসী সূত্রে জানাযায় রকেয়া বেগম ইতিমধ্যেই ছয় থেকে সাত বার বিয়ে হয়েছিল। রোকেয়া বেগম বিয়ে করে স্বামীর সম্পত্তি হাসিল করায় তার এক ধরনের নেশা।
এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে সালিশদার ইউপি সদস্য মানিক গাজী বলেন, গত রবিবার রাতে উভয় পক্ষকে নিয়ে একটি সমঝোতা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তালাকপ্রাপ্ত রোকেয়া বেগমকে কে তার বড় ভাইয়ের হাতে তুলে দেওয়া হয়। বর্তমানে রোকিয়া বেগম তার বাবার বাড়ি উপজেলার কয়মাজনপুরে অবস্থান করছে। এ বিষয়ে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হাসমত আলীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, বিষয়টি শুনেছি তবে এ বিষয়ে এখনো কোনো লিখিত অভিযোগ পায়নি অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শর্টলিংকঃ