নাচোলে জমিজমা বিরোধের জেরে দুই ব্যক্তিকে পিটিয়ে গুরুতর জখম, গ্রেফতার ০৩

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে জমিজমা বিরোধের জেরে দুই ব্যক্তিকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। আহতরা রামেকে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ৩ জনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরন করেছে।
নাচোল থানা ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ জুলাই সোমবার সকাল আনুমানিক ৮টার সময় উপজেলার নাচোল ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামে আনসারুল ও তার ছোট ছেলে সাফিউল তার বাড়ীর পাশে নিজ জমিতে ঢেঁড়শ ও পাটের শাক তুলছিলেন। এ সময় একই গ্রামের মৃত জমিরুদ্দিনের ছেলে সাদিকুল ইসলাম (৪৫) ও ময়েজ উদ্দিন (৫০), মৃত ইমাজউদ্দিনের ছেলে জবেদ আলী (৪৫), মৃত আমিন মন্ডলের ছেলে মহির উদ্দিন (৫৫), সাদিকুল ইসলামের ছেলে মাসুম রেজা (২৫), মনি (২২), জবেদ আলীর ছেলে রনি (২৩), মহিরউদ্দিনের ছেলে বাবুল (৩৫), নজরুল ইসলামের ছেলে আরিফ (২৮) ও মৃত আমিনের ছেলে নজরুল (৪০) তারা বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।
আনসারুলের স্ত্রী সেলিমা বেগম জানান, সাদিকুল ইসলাম হুকূম দিয়া বলেন যে,“দেখছিস কি; মার শালারাকে;মেরে হাত পা ভেঙ্গে ফেল; যাকিছু হয় দেখবো।” এই হুকুম পাওয়া মাত্রই আমার স্বামী ও সনতানের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এতে দু’জনই গুরুতর জখম হয়।
সন্ত্রাসিরা ঘটনাস্থল থেকে চলে যাবার পর আমার স্বামী সন্তানকে উদ্ধার করে নাচোল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে জরুরী বিভাগে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক রোগীর অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। বর্তমানে তাদের ভাঙ্গা হাত-পা রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অপারেশন করে প্লাস্টার করা হয়েছে এবং চিকিৎসা চলছে। আনসারুলের স্ত্রী সেলিমা বেগম আরো জানায়, তিনি বাদী হয়ে গত ২২জুলাই নাচোল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
এব্যাপারে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন নাচোল উপজেলা শাখার সভাপতি এ্যাডঃ মোস্তাফিজুর রহমান বুলেট জানান, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক ও ন্যক্কারজনক। এই বর্বারোচিত হামলার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি, সেই সাথে ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করছি।
নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা জানান, এব্যাপারে নাচোল থানায় একটি মামলা হয়েছে। এই ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে গত ২৪জুলাই ৩জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

শর্টলিংকঃ