নাটোরে পুলিশের ওপর হামলা করে বিএনপির সস্ত্রর ক্যাডাররা ওসি-সাংবাদিক সহ অন্তত ২০ জন আহত

নাটোর থেকে গোলাম গাউস

বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবীতে নাটোরে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে থেকে পুলিশের ওপর হামলা করে বিএনপির জঙ্গি সস্ত্রর ক্যাডাররা। এ সময় পুলিশ লাঠিচার্জ ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করলে বিএনপির সস্ত্রর ক্যাডাররা ইটপাটকেল ছুড়তে থাকে। এতে নাটোর সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুনসুর রহমান, দৈনিক যুগান্তরের নাটোর প্রতিনিধি শহীদুল হক সরকারসহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে সদর থানার ওসি এবং সাংবাদিক শহীদুল হক সরকারসহ অন্যদেরকে নাটোর সদর হাসপাতালসহ বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার পর আহতদের দেখতে সদর হাসপাতালে ছুটে যান পুলিশ সুপার লিটন কুমার সাহা। তিনি এ সময় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করার আশ্বাস দেন।

আজ সোমবার সকালে বিএনপি’র চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার দাবীতে নাটোর শহরের আলাইপুরে জেলা বিএনপির কার্যালয়ের সামনে জঙ্গি মিছিল নিয়ে জড়ো হতে থাকে বিএনপির সস্ত্রর ক্যাডাররা । সমাবেশ শান্তিপূর্ন করতে পুলিশ তাদের নির্দেশ দিলেও বিক্ষিপ্ত হয়ে উঠে তারা। এ সময় পুলিশ সমাবেশ ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ শুরু করে। পরে বিএনপির সস্ত্রর ক্যাডাররা পাল্টা ইট পাটকেল ছুড়তে থাকে। পুলিশও টিয়ারশেল রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। এতে ইটের আঘাতে সদর থানার ওসি মুনসুর রহমান, দৈনিক যুগান্তরের নাটোর প্রতিনিধি শহীদুল হক সরকার সহ অন্তত ২০ জন আহত হয়। পরে আহতদের উদ্ধার করে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নিতে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে নাটোর শহর থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।
এদিকে গুরুতর আহত যুগান্তরের নাটোর প্রতিনিধি শহিদুল হক সরকারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় জেলা যুবদল সভাপতি এ হাই তালুকদার ডালিক, বড়াইগ্রাম উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক শামছুল হক রনি সহ ৫জনকে আটক করেছে পুলিশ।
২২-১১-২১

শর্টলিংকঃ