ভবানীগঞ্জ বাজারের জিরো পয়েন্টের অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ, নির্মিত হবে বঙ্গবন্ধুর মুর‍্যাল

মোস্তাফিজুর রহমান জীবন, বাঘমারা।

উপজেলা সদরের ভবানীগঞ্জ বাজারের জিরো পয়েন্টে বঙ্গবন্ধুর মুর‍্যাল নির্মাণের উদ্যোগে গ্রহণ করা হয়েছে। স্থানীয় সাংসদ ইঞ্জি এনামুল হকের নির্দেশনায় এই পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়। এ জন্য ভবানীগঞ্জ বাজারের জিরো পয়েন্টের সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের অভিযান শুরু করে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ গতকাল মঙ্গলবার ও বুধবার ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা ও আনসার বাহিনীর সদস্যদের সাথে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করেন।
এ সময় ইউএনও জিরো পয়েন্টর বেশ কিছু অবৈধ স্থাপনা পানবিড়িরি দোকান, ফলমূলের দোকান সহ চা স্টল সহ বিভিন্ন অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেন।
এ দিকে সাংসদের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ইউএনও’র অভিযানকে সাদুবাদ জানিয়েছেন সাধারণ জনগন। তারা জানান, ভবানীগঞ্জ বাজারের জিরো পয়েন্টে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন করা হলে জাতীর জনক বন্ধুবন্ধুর প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো হবে সেই সাথে বাজারের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে।

এছাড়া জিরো পয়েন্টে এসব অবৈধ স্থাপনার জন্য প্রতিনিয়ত যে যানজট লেগে জনসাধারনের প্রচন্ড ভোগান্তি পোহাতে হয় তার অবসান হবে। তাই আমরা চাই দ্রুত এই উদ্যোগে বাস্তবায়ন করা হোক। ভবানীগঞ্জ সরকারি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি নাদিরুজ্জামান মিলন ও সাধারন সম্পাদক আব্দুল মজিদ সহ অন্যান্য নেতা কর্মীরা জানান, ভবানীগঞ্জ বাজারে বাগমারার কৃতি সন্তান ইঞ্জি এনামুল হক ভবানীগঞ্জ বাজারের জিরো পয়েন্টে বঙ্গবন্ধুর যে ম্যুরাল নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন তা একটি যুুগান্তকরী পদক্ষেপ।

এর মাধ্যমে আগামী প্রজন্ম বঙ্গবন্ধু ও স্বাধীনতার ইতিহাস সঠিক ভাবে জানান ও উপলদ্ধি করার সুযোগ পাবে। এর পাশাপাশি উপজেলা হেডকোয়ার্টার হিসাবে ভবানীগঞ্জ বাজারের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পাবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শরিফ আহম্মেদ জানান, স্থানীয় সাংসদ ইঞ্জি এনামুল হকের নির্দেশনা ও পরিকল্পনা মোতাবেক ভবানীগঞ্জ বাজারের জিরো পয়েন্টে বঙ্গবন্ধুর একটি ম্যুরাল নির্মানের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

এ জন্য জিরো পযেন্টের সকল অবৈধ স্থাপনার উচ্ছেদ অভিযান শুর করেছি। দ্রুত এখানে বঙ্গবন্ধুর একটি ম্যুরাল নির্মানের কাজ শুর করা হবে। পাশাপাশি ভবানীগঞ্জ বাজারের অন্যান্য সকল অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে বাজারের সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও যানচলাচল নির্বিগ্ন করা হবে।

শর্টলিংকঃ