রাজশাহীতে আগাম টমেটো চাষে ব্যস্ত কৃষক

তানোর(রাজশাহী)প্রতিনিধি

রাজশাহীর তানোর ও গোদাগাড়ী উপজেলা টমেটো চাষের জন্য প্রসিদ্ধ দেশের সিংগ ভাগ টমেটো উৎপাদন হয় এই দুই উপজেলায়। তবে আগাম টমেটো চাষের জন্য বিখ্যাত গোদাগাড়ী উপজেলা।ইতঃমধ্যে শীতকালীন সবজি টমেটোর আগাম চাষাবাদ করার জন্য বীজতলায় চারা তৈরি ও পরিচর্যা করতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে এই উপজেলার টমেটো চাষিরা।তবে তানোরে হাতেগোনা দু’এক জায়গায় দেখা গেলেও গোদাগাড়ী পুরোদমে আগাম টমেটোর চাষ শুরু হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, চলতি মৌসুমে ২০২১-২২ গোদাগাড়ী উপজেলায় টমেটো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে প্রায় ২ হাজার ৯শ” ৫০ হেক্টোর। গত মৌসুমে ২০২০-২১ টমেটো চাষের লক্ষ্যমাত্রা ছিল ২ হাজার ৬শ” ৫০ হেক্টোর তবে চাষ হয়েছিল ২ হাজার ৯শ” ৫০ হেক্টোর।

তবে কৃষি অফিস বলছে চলতি মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশী টমেটো চাষের সম্ভাবনা রয়েছে।সরেজমিন উপজেলার হেলিপ্যাড, মালকামলা, পাহাড়পুর, সাধুরমোড়,

বিদিরপুর, পিরিজপুর, গোপালপুল, ভাটোপাড়াসহ বেশ কয়েকটি গ্রাম ঘুরে টমেটোর বীজতলা নিয়ে চাষিদের কর্মব্যস্ততার দৃশ্য দেখা যায়। সারা বেলা চাষিদের নানামুখী কাজের ফাঁকে ব্যস্ত বীজতলা নিয়ে। কাকডাকা ভোরে বাড়ি থেকে বেরিয়ে বীজতলায় ব্যস্ত সময় পার করছেন। কাঁচি, কোদাল, আনুষঙ্গিক সরঞ্জামাদি নিয়ে নেমে পড়ছেন জমিতে। কেউ কেউ প্রস্তুত করছে বীজতলার জন্য জমি। আবার কেউ গজিয়ে উঠা টমেটোর চারায় পানি দিচ্ছে। অনেকেই ব্যস্ত বীজতলা পরিচর্যায়। এদিকে পুরুষের পাশাপাশি এ কাজে নারীদেরও দেখা মেলে। সরেজমিন কোথাও কোথাও দেখা যায়, বীজতলা প্রস্তুতের পর জমির মাঝ বরাবর নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে বীজ রোপণ করা হয়েছে। এরপর বাঁশের তৈরি ‘বেড়া’ রিংয়ের মতো বসিয়ে উপরে পলিথিন দিয়ে পুরো বীজতলা মুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। চাষি জহুরুল ইসলাম বলেন, গরম পরিবেশ সৃষ্টি করতে পলেথিন দিয়ে বীজতলা ঢেকে দেওয়া হয়। মাঝে মাঝে ঢেকে দেওয়া পলিথিনগুলো সামান্য উঠিয়ে এক পাশ ফাঁকা করে দেওয়া হয়। যেন বাইরের বাতাস বীজতলায় প্রবেশ করতে পারে। বীজ রোপণ থেকে শুরু করে প্রথম এক সপ্তাহের মতো এ কার্যক্রম চলে। বীজ গজিয়ে ওঠার পর চাষিরা সেই পলিথিনগুলো সরিয়ে ফেলেন। এরপর নিয়মিত চলে পরিচর্যা।গোদাগাড়ী উপজেলা কৃষি অফিসের কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মতিয়র রহমান ও উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা (রিশিকুল ইউপি) আব্দুল হান্নান জানান, তারা সব সময় কৃষকের পাশে রয়েছেন। আগাম জাতের ও টমেটো ক্যারেট করা যায় এমন জাতের টমেটো চাষের জন্য কৃষকদের পরার্মশ দেওয়া এবং ব্যাবস্থা করা হচ্ছে। কৃষকরা যেনো আগাম টমেটো ক্ষেত থেকে উত্তোলন করতে পারে। এতে কৃষকরা টমেটোর দাম ভাল পাবে। তারা আরো বলেন, এই সময় কোন অসাধু বীজ ব্যাবসায়ী বীজ নিয়ে কৃষকদের সঙ্গে যেনো প্রতারণা করতে না পারে সেই জন্য মাঠ পর্যায়ে মনিটরিং জোরদার করা হয়েছে ।

শর্টলিংকঃ